সিরাত বিষয়ক অপপ্রচার এর জবাব সমূহ

কঠোরতা ও জোর-জবরদস্তি করে অধিকার আদায়, জালিম ও অত্যাচারীর চরিত্র। কিন্তু আমাদের নাবী ﷺ হকদারের ন্যায় সংগত হক আদায় ও তার সহায়তার নিমিত্তে ন্যায়ের মানদন্ড নির্ধারণ করেছেন। যেন তারা তাদের হক বুঝে পায় ও তা গ্রহণ করে। আল্লাহ ﷻ‎ তা‘আলা আমাদের নাবী ﷺ ন্যায় ও সত্যের পথে আদেশ ও নিষেধের যে আদর্শ দান করেছেন, তা তিনি বাস্তবায়ন করেছেন। আমরা রাসুলুল্লাহ ﷺ-  এর জীবনে কোন কঠোরতা, জবরদস্তি ও জুলুম-অত্যাচারের খুঁজে পাই না । আয়েশা رضي الله عنها বলেন, « ما ضرب رسول الل ه - صلى الله ع ليه وسلم -شيئًا قط بيده، ولا ا....
18 Min read
Read more
Pearl S. Buck একজন বিখ্যাত মহিলা আমেরিকান উপন্যাসিক যিনি ১৯৩৮ সালে সাহিত্যে নোবেল প্রাইজ পেয়েছিলেন। উনার উপন্যাস গুলি ১৯০০ সালের চীনের সামাজিক পটভূমির উপর লিখিত। The Good Earth,  East Wind:West Wind, A House divided এই গুলি উনার Best Selling উপন্যাস। Pearl S. Buck এর উপন্যাসের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি যে ১৯০০ সালের দিকে চীনের অনেক ধনী ব্যবসায়ী, বড় বড় আমলা, রাজনীতিবীদরা নিজ স্ত্রী ছাড়াও ঘরে আরো অনেক রক্ষিতা রাখতো। এই রক্ষিতাদের গর্ভে চীনের এইসব ধনী ব্যবসায়ী, বড় বড় আমলা, রাজনীতিবীদদের সন্ত....
19 Min read
Read more
অনেক মুসলিম ভাই বোন মাঝে মাঝে প্রশ্ন করেন " রাসূলুল্লাহ (ﷺ) এটা না করলে কি পারতেন না? তাহলেতো আজকে এই প্রপাগান্ডার সুযোগ ছিল না! " এই লেখনি শুধু তাদের জন্য!     বন্ধুগন, রাসুল(ﷺ) মাওলার নির্দেশ ছাড়া কিছুই করেননি!  সর্বজ্ঞ মাওলা ভবিষ্যত জানতেন বলেই এই বিয়ের নির্দেশ দিয়েছিলেন তার প্রিয় হাবিবকে! নিচের লেখনিতেই আপনারা বুঝবেন ইসলামের ইতিহাসে এই বিয়ের প্রভাব কত ব্যাপক ছিল!    রাসুল(ﷺ)-এর প্রতিটি বিয়েই ছিল ইসলামের স্বার্থে !!   আর ইসলামের জন্য সবচেয়ে বেশি ফলপ্রদ হয় আয়েশা( رضي الله عنها )-এর সাথে হুজুর....
12 Min read
Read more
মিথ্যাচার:  হাফসা(রাঃ) কে ধোঁকা দিয়ে বাপের বাড়িতে পাঠিয়ে তার কৃতদাসী মারিয়া(রাঃ) এর সাথে সহবাস করেছেন রাসুল(সাঃ) (নাউজুবিল্লাহ)! পরবর্তিতে এই সমস্যার সমাধানের জন্য নিজের ইজ্জত ও পারিবারিক কলহ মইইটাতে  সূরা আততাহরিমের প্রথম ৫আয়াত নাজিল করেন(নাউজুবিল্লাহ)!  জবাবঃ আমরা আততাহরিমের আয়াত  At-Tahrim 66:1-5 (1) يَٰٓأَيُّهَا ٱلنَّبِىُّ لِمَ تُحَرِّمُ مَآ أَحَلَّ ٱللَّهُ لَكَۖ تَبْتَغِى مَرْضَاتَ أَزْوَٰجِكَۚ وَٱللَّهُ غَفُورٌ رَّحِيمٌ  (2) قَدْ فَرَضَ ٱللَّهُ لَكُمْ تَحِلَّةَ أَيْمَٰنِكُمْۚ وَٱللَّهُ م....
11 Min read
Read more
প্রশ্নঃ মারিয়া কিবতিয়া (রাদেয়াল্লাহু তা'আলা আনহু) এবং রায়হানা (রাদেয়াল্লাহু তা'আলা আনহু) রাসূল (সাঃ) এর স্ত্রী ছিলেন নাকি দক্ষিণহস্তগত ছিলেন? উত্তর দেওয়ার আগে একটু আপনাদের ভুলভ্রান্তি ও ধারণা ঠিক করতে চাই। কোন ক্ষেত্রে কোন শব্দ প্রযোজ্য সেটা ঠিক করতে না পারলে পড়াশোনা ছেড়ে দেন, আর কী করবেন? দক্ষিণহস্ত ও স্ত্রীঃদক্ষিণহস্ত দাসী অনেকটা স্ত্রীর মতোই। তবে ক্ষুদ্র কিছু পার্থক্য বিদ্যমান। মিল ও অমিলসমূহঃ উদ্দেশ্যের পার্থক্য নিয়ে বিখ্যাত ইসলামিক স্কলার আবু-ওয়ালিদ আল-বাজি আল-মালিকী (মৃঃ ৪৭৪ হিজরি) লিখেছে....
22 Min read
Read more
    বিভিন্ন হাদিস দেখিয়ে দাবি করা হয়, যে আয়েশাহর (رضي اللّٰه عنها) বয়স যখন ৯ বছর ছিল তখন মুহাম্মাদ (ﷺ) তার সাথে সহাবাস করেছিলেন। এই লেখাটিতে একটি ভাষাগত আলোচনার মাধ্যমে পরিক্ষা-নিরিক্ষা,যাচাই-বাছাই ও বিশ্লেষন  করা হবে যে উক্ত হাদিসগুলোতে আসলেই এটা বলা হয়েছে, নাকি অন্য কিছু বুঝানো হয়েছে। এই মর্মে যেই হাদিসগুলো দেখানো হয়, তার প্রায় সবগুলোরই মুল রুপ কিছুটা এরুপ : "আয়েশাহ (رضي اللّٰه عنها) হতে বর্নিত, তিনি বলেছেন আমি যখন ৬ বছর বয়সী ছিলাম তখন রাসুল (ﷺ) আমাকে বিয়ে করেন, এবং আমি যখন ৯ বছর বয়সী ছিলাম ত....
7 Min read
Read more
  একজন মেয়ের প্রাপ্তবয়স্ক হয়ার বয়স সম্পর্কে আয়েশাহর (রা) হতে একটি হাদিস বর্নিত আছে। এই লেখাটিতে উক্ত হাদিস ও সেটার বিশুদ্ধতা সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। ---------------------------------------১.মতন উপস্থাপন ও তাখরিজ : -------------------------------------- *হাদিসটির মতন : আয়েশাহ বিনত আবি-বকর আল-কোরাশিয়াহ (রা) বলেছেন :"إِذَا بَلَغَتِ الْجَارِيَةُ تِسْعَ سِنِينَ فَهِيَ امْرَأَةٌ"[1][2][3]অর্থ : যখন একজন অপ্রাপ্তবয়স্ক মেয়ে নয় বছর বয়সে পৌছায়, তখন সে ইমরায়াহ (প্রাপ্তবয়স্ক মহিলা) হয়ে যায়। *হাদ....
26 Min read
Read more
  আবু সুফিয়ান (রাঃ)-কে ইসলাম গ্রহণে বাধ্য করা হয় নি islamweb ফতোয়া নং ৩৭৪০৯৮https://www.islamweb.net/en/fatwa/374098/abu-sufyan-was-not-forced-to-embrace-islam   অনুবাদ ও সম্পাদনাঃ তাহসিন আরাফাত প্রশ্নঃ আমার প্রশ্নটি আবু সুফিয়ান (রাঃ)-এর ইসলাম গ্রহণ নিয়ে। অনেক ইসলামবিরোধীরা যুক্তি দেয় যে আবু সুফিয়ান (রাঃ) কে জোরপূর্বক ইসলাম গ্রহণ করানো হয়েছে। তারা নিম্নোক্ত বর্ণনাটি দেখায়ঃ"ধিক্ তোমার প্রতি, আবু সুফিয়ান! এখনো কি তোমাদের জানার সময় হয়নি যে, আমি আল্লাহর রসূল?" - রাসূল (সাঃ) বললেন।আবু সুফিয়ান বল....
11 Min read
Read more
অভিযোগ : আবু বকর আলী দাসদের প্রহার করতেন ইসলামের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র মুহাম্মদের পরে ইসলামি সাম্রাজ্যের খলিফা আবু বকরের একজন দাস একটি উট হারিয়ে ফেলায় আবু বকর তাকে প্রহার করছিলেন, সেই দৃশ্য দেখে নবী মুহাম্মদ হাসছিলেন বলে হাদিস গ্রন্থ থেকে প্রমাণ পাওয়া যায় সূনান আবু দাউদ (ইসলামিক ফাউন্ডেশন)৫/ হাজ্জপরিচ্ছেদঃ ২৮. ইহরা্ম অবস্থায় কোনো ব্যক্তি নিজ গোলামকে প্রহার করলে।১৮১৮.আহমাদ ইবন হাম্বল (রহঃ) ...... আসমা বিনত আবূ বাকর (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, আমরা (বিদায় হজ্জের সময়) রাসূলুল্লাহ সাল্লা....
13 Min read
Read more
    সিরাতে ইবন হিশামে আছে : " وَأَمَّا عَلِيٌّ فَإِنَّهُ قَالَ: يَا رَسُولَ اللَّهِ إنَّ النِّسَاءَ لَكَثِيرٌ، وَإِنَّكَ لَقَادِرٌ عَلَى أَنْ تَسْتَخْلِفَ، وَسَلْ الْجَارِيَةَ، فَإِنَّهَا سَتُصْدِقُكَ.فَدَعَا رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ بَرِيرَةَ لِيَسْأَلَهَا، قَالَتْ: فَقَامَ إلَيْهَا عَلِيُّ بْنُ أَبِي طَالِبٍ، فَضَرَبَهَا ضَرْبًا شَدِيدًا، وَيَقُولُ: اُصْدُقِي رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ،" [1] "আলি (রা) বললেন : হে রাসুলুল্লাহ, নিশ্চই নারিরা অনেক, অবশ্....
8 Min read
Read more
"আব্দুল্লাহ ইবনে সা'দ ইবন আবি সারহ" - মুরতাদের শাস্তি নাকি অন্যায়ভাবে হত্যা? রাসূল (সাঃ) আব্দুল্লাহ ইবনে সা'দ ইবনে আবি আস-সারকে শুধুমাত্র মুরতাদ হওয়ার জন্যই হত্যা করার নির্দেশ দেননি।  বরং, হাদিস এবং অন্যান্য সূত্র থেকে জানতে পারি, একবার তিনি ইসলাম ত্যাগ করার পরে, তিনি নবী (সাঃ) এর বিরুদ্ধে যুদ্ধে মক্কার মুশরিকদের সাথে যোগ দিয়েছিলেন। মক্কা বিজয়ের পরে মুশরিকদের জন্য সাধারণ ক্ষমা ঘোষণা করলেও যে নয়জনের জন্য ক্ষমা ছিলো না সে তাদেরই একজন ছিলো।       [ মুরতাদের বিধান সম্পর্কে না জেনে থাকলে দেখে নিন: ....
6 Min read
Read more
  একটি তথ্য প্রচার কর হয়ে থাকে যে মুহাম্মাদ (ﷺ) "বানু উমার বিন কিলাব" গোত্রের একজন নারিকে বিয়ে করেন, এবং পরবর্তিতে যখন জানতে পারেন যে সেই মহিলা একজন কুষ্ঠরোগি, তখন তিনি উক্ত মহিলাকে তালাক দেন। এই তথ্যের মুল উৎস হলো "সুফিয়ান বিন ইয়াকুব আল-ফাসাওই" এর সুত্রে বর্নিত একটি বর্ননা। "সুফিয়ান বিন ইয়াকুব আল-ফাসাওই" তার "আত-তারিখ ওয়াল মা'রেফাহ" (3/269) গ্রন্থে বর্ননা করেন : 'روى يعقوب بن سفيان عن حجاج بْنُ أَبِي مَنِيعٍ عَنْ جَدِّهِ عَنِ الزُّهْرِيِّ عن عروة عن عائشة …تزوج رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ ع....
5 Min read
Read more