মস্তিষ্কের আকার ডারউইনের বিপক্ষে

 

গত কয়েক মিলিয়ন বছরে হোমো ইরেক্টাস গ্রুপে বিবর্তনের কারণে মস্তিষ্কের আকার ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পেয়েছে বলে বিবর্তনবাদীদের দাবি। কিন্তু প্রমাণ ভিন্ন কথা বলে।
Now that comparable data is available, it appears clear that, if H. sapiens includes all the people alive in the world today, their ancestors in the Late Pleistocene and “archaic” H. sapiens, like Dali and Xujiayao, then vault thickness can not be used to distinguish H. erectus from H. sapiens.’
(Brown, P., cranial-vault thickness in Asian Homo erectus and Homo sapiens, in: Franzen, J.L., ed., 100 Years of Pithecanthropus: The Homo Erectus Problem, Courier Forschungs Institut Senckenberg 171, pp. 33–45, 1994)
অন্যান্য- https://www.schweizerbart.de/publications/detail/isbn/9783510611027/CFS_Courier_Forschungsinstitut_Senckenbe
https://www.researchgate.net/publication/285087555_Cranial_vault_thickness_in_Asian_Homo_erectus_and_Homo_sapiens
 
হোমো ইরেক্টাসরা মানুষ ছিল, বানর না। আর একারণেই ইরেক্টাসদের মস্তিষ্কের আকার আজকের দিনের অনেক মানুষের মস্তিষ্কের আকারের সমান। অর্থাৎ আধুনিক মানুষের মস্তিষ্কের আকারের সীমার ভেতরেই পড়ে।
যদি কেউ দাবি করে যে, ইরেক্টাসের চেয়ে আমাদের মস্তিষ্ক বড়, তাই আমরা বুদ্ধিমান। তাহলে তার জন্য দু:সময়। বস্তুত আমাদের মস্তিষ্ক ছোট হচ্ছে
Our brains shrinking, The Courier-Mail, 7 February 2011, p. 21
Santini, J., Are brains shrinking to make us smarter?, The Sydney Morning Herald, news.smh.com.au, 6 February 2011
 https://www.scientificamerican.com/article/why-have-our-brains-started-to-shrink
Share this:

More articles

মূল লেখক: Ismail Hosen Emon  [নোটঃ— আর্টিকেলে কুরআন মাজীদ অনুযায়ী বিশুদ্ধ/সহীহ হাদিস মানা যে বাধ্যতামূলক তা উল্লেখ করা হবে।] ■ সর্বপ্রথম আমাদের জানতে হবে "আহলে কুরআন" কারা? হাদীস অনুযায়ী আহলে কুরআন হচ্ছেঃ-  إِنَّ لِلهِ أَهْلِينَ مِنْ النَّاسِ فَقِيلَ مَنْ أَهْلُ اللهِ مِنْهُمْ قَالَ أَهْلُ الْقُرْآنِ هُمْ أَهْلُ اللهِ ❝মানবমণ্ডলীর মধ্য হতে আল্লাহর কিছু বিশিষ্ট লোক আছে; আহলে কুরআন (কুরআন বুঝে পাঠকারী ও তদনুযায়ী আমলকারী ব্যক্তিরাই) হল আল্লাহর বিশেষ ও খাস লোক।❞[01] আহলে কুরআন বলতে ওই সকল ব্যক্তিবর....
35 Min read
Read more
Contents ভুল কোথায়?. 1 সূর্য প্রদীপ, চাঁদ নয়. 2 তাফসীর ও আলোর শ্রেণিভেদ. 2 নূর শব্দের অর্থ. 3 সম্ভাব্য কুযুক্তি... 3 মহান আল্লাহ বলেন, وَّ جَعَلَ الۡقَمَرَ فِیۡہِنَّ نُوۡرًا وَّ جَعَلَ الشَّمۡسَ سِرَاجًا “আর চন্দ্রকে স্থাপন করেছেন আলোক রূপে আর সূর্যকে প্রদীপরূপে”। (কুরআন, ৭১ঃ১৬) উপরের আয়াত নিয়ে অভিযোগ হল, ‘নূর’ শব্দের অনুবাদ ‘প্রতিফলিত আলো’ করা নাকি ভুল! তো আমি বেশ কিছু ধাপে জবাব দিব। ভুল কোথায়? শুধু উপর্যুক্ত আয়াতের উপর ভিত্তি করে: ‘আত-তাহরীর ওয়াত-তানওয়ীর’ কিতাবে ‘নূর’ শব্দ নিয়ে বলা আছে, “সূর....
11 Min read
Read more
 ভূমিকা   লিঙ্গ সংক্রান্ত   আকৃতি সংক্রান্ত   নারীর বীর্য নেই?   শব্দের মারপ্যাচ   অনুবাদের ভুল   বিভ্রান্তি   হাদিসের ব্যাখ্যা   পুরুষের ভূমিকা   আবার বিভ্রান্তি   আমার প্রস্তাবনা   নারীর ভূমিকা   শেষ কথা    ভূমিকা আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ-র ইচ্ছায় বহুদিন পর একটা জটিল সমস্যা নিয়ে পোস্ট লিখছি। প্রতিবারের মত এবারও নাস্তিকরা ইসলামের ভুল ধরতে গিয়ে, ইসলামের অলৌকিকত্ব খুঁজে বের করতে সাহায্য করেছে। যাই হোক, মূল আলোচনায় আসি। লিঙ্গ সংক্রান্ত হাদিস –  সে বলল, আমি আপনাকে সন্তান সম্পর্কে জিজ্ঞেস করতে এসেছি।....
18 Min read
Read more
আজকে আপনাদের সাথে আলোচনা করবো একটি নতুন ধর্ম নিয়ে। যার নাম নাস্তিক্য ধর্ম। আপনাদেরকে জানানোর চেষ্টা করবো নাস্তিক্য ধর্মে স্রষ্টা সম্পর্কে এবং কিভাবে সেই স্রষ্টাকে উপাসনা করতে হয়। সাথে পরিষ্কার করে দেবো নাস্তিক্য ধর্মের অবতারেরা কিভাবে তাদের ধর্মের প্রচার ও সামাজিক-রাষ্ট্রীয় ভাবে পরিচালনা করেছে। নাস্তিকদের এটা স্বীকার করতে তাদের কষ্ট হয় যে, নাস্তিকতাও একটা ধর্ম। নাস্তিকেরা যেন এই কথাটা স্বীকারই করতে চায় না। কারণ এটা স্বীকার করলে তাদের ধর্মের গোপন ও ভয়ংকর কিছু রূপ বের হয়ে আসে। যা নিয়ে স্ব....
9 Min read
Read more
জিহাদ বলতে অমুসলিমরা সাধারণত "যুদ্ধ" বুঝে থাকে। খ্রিস্টান মিশনারীরা যখনই বিতর্কে হেরে যায়, তখনই আলোচনা ঘুরাতে ইসলামের জিহাদ নিয়ে মিথ্যাচার করা শুরু করে। আজ আমরা বাইবেলের আলোকে "যুদ্ধ" সম্পর্কে জানবো। যুদ্ধ নিয়ে বাইবেলে কী কিছু বলা আছে? বাইবেলের কিছু যুদ্ধের চিত্র আপনাদের সামনে তুলে ধরছি। ঈশ্বর নিজেকে, ঈশ্বর প্রমান করতে ১ লক্ষ ২৭ হাজার মানুষকে হত্যা করে: 23. রাজা বিন্হদদের রাজকর্মচারীরা তাঁকে বললেন, “ইস্রায়েলের দেবতারা আসলে পর্বতের দেবতা| আর আমরা পর্বতে গিয়ে যুদ্ধ করেছি তাই ইস্রায়েলের লোকরা জ....
17 Min read
Read more
    Fun – মাছ থেকে মানুষের বিবর্তন সকল বিষয়ে নোবেল-বিজয়ী’সহ গ্যালিলিও-নিউটন-আইনস্টাইনের মতো বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের কেউই কোনো ধর্মবিদ্বেষী ছিলেন না, এখনো নেই। গ্যালিলিও ও নিউটন বরং আস্তিক ছিলেন। আর আইনস্টাইন অন্ততঃ স্বঘোষিত নাস্তিক ছিলেন না। এদিকে তিনজন বিজ্ঞানী’সহ যে’কজন মুসলিম নামধারী নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তাঁদের সকলেই ইসলামে বিশ্বাসী।কারন ইসলামের সাথে বিজ্ঞানের কোন বিরোধ তারা পান নি, শুধু বিবর্তনবাদ ছাড়া। ভাবুন তো, বিজ্ঞানের সাথে কোন বিরোধ না থাকা সত্বেও বিবর্তনবাদ একা কেন ইসলামের সাথে শত্রুতা ....
2 Min read
Read more