যোগাযোগে নিরাপত্তাঃ Big Tech-এর ফাঁদে উম্মাহ

যোগাযোগে নিরাপত্তার গুরুত্ব মামুনুল হক ইস্যুর পরে সচেতন জনগণ ঠিকই বুঝে গেছে। কিন্তু অধিকাংশ লোকেরা বুঝেন নি। তাদের জন্যেই এই পোস্ট।
আজ আপনি নিরাপদে আছেন, কিন্তু কবে আপনার দেশ আমেরিকা বা চীনের সাথে যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে, ঠিক আছে? তখন আপনার ব্যবহৃত প্রযুক্তিই আপনার শত্রু হবে না তার নিশ্চয়তা কি? আমরা কি কুফফারদের উপর এতটাই আস্থাশীল?
একটা ওয়েবসাইট আছে যেখানে মোবাইলের ডাটা ভিত্তি করে কোথায় কোন মতাদর্শ জনপ্রিয়, কারা আন্দোলন করতে পারে ইত্যাদি লিস্ট করা হয়েছে। এসব তথ্য ব্যবহার করে যেকোন দেশের উদীয়মান ইসলামপন্থী আন্দোলন অঙ্কুরে বিনষ্ট করা যায়। এছাড়াও আপনার personality cloning করা হয়। কেন জানি মনে হয় যে, দাজ্জাল যখন মৃৃতকে জীবিত করে দেখাবে তখন এই personality clone ব্যবহার করবে। আল্লাহ অধিক জানেন।
আমাদের দেশি কিছু ইসলামি অ্যাপ আছে, যেগুলোর অনেকগুলো আমাদের সামান্য যাকাত, ফিতরা ও সাদাকাহ নিয়ে এগিয়ে চলেছে। এই অ্যাপগুলোও গুগলের লাইব্রেরি ব্যবহার করে ফাদে পড়েছে। কিন্তু কারও কোন মাথাব্যথা নেই।
ফেসবুক ইউটিউব চলছে তো চলছেই। বিকল্প কেউ খুজছে না। অথচ গত বছরেও বড় বড় ইসলামি গ্রুপগুলো ফেসবুক বন্ধ করে দিল। ভারতে বিজেপি -কে নির্বাচনে জিততে সাহায্য করল। শ্রীলঙ্কায় মুসলিম বিরোধী দাঙ্গায় প্রচার মাধ্যম হিসাবে ব্যবহৃত হল।
এত সহজে এসব প্লাটফর্ম ত্যাগ করা যায় না আমি জানি। কিন্তু সদিচ্ছা থাকলে হয়।
যদি ইসলামি সেলিব্রিটিরা একযোগে সিদ্ধান্ত নেয় যে, তারা এখন থেকে ফেসবুক ছেড়ে minds.com চালাবে, ফেসবুকের মেসেঞ্জার ছেড়ে telegram চালাবে, whatsapp ছেড়ে signal, টুইটার ছেড়ে gab.com, ইউটিউব ছেড়ে odysee.com চালাবে। তাহলে একটা বিপ্লব করা যেত। আল্লাহ অধিক জানেন।
বড় বড় ইসলামি গ্রুপগুলো যদি মেম্বারদের এসব ব্যবহারে নিয়মিত উৎসাহ দিয়ে যায়, তাহলে 1 বছরের মাথায় বাংলাদেশ big tech এর ক্ষতি অনেকাংশে কমাতে পারবে বলে আশা করা যায়।
ফেসবুক ভিত্তিক ব্যবসায়ীদের একটা পিছুটান থেকেই যায়। তবে Gab & মাইন্ডসেও পণ্য প্রোমোট করা যায়। দুশ্চিন্তার কিছু নেই।
এতক্ষণ যা বললাম, সব দৈনন্দিন কাজ নিরাপদে করার জন্য। বিশেষ প্রয়োজনে অতিরিক্ত নিরাপত্তা অবলম্বন করা উত্তম। তখন blabber / pidgin জাতীয় xmpp ভিত্তিক অ্যাপ ব্যবহার করতে হবে।
Share this:

More articles

জিহাদ বলতে অমুসলিমরা সাধারণত "যুদ্ধ" বুঝে থাকে। খ্রিস্টান মিশনারীরা যখনই বিতর্কে হেরে যায়, তখনই আলোচনা ঘুরাতে ইসলামের জিহাদ নিয়ে মিথ্যাচার করা শুরু করে। আজ আমরা বাইবেলের আলোকে "যুদ্ধ" সম্পর্কে জানবো। যুদ্ধ নিয়ে বাইবেলে কী কিছু বলা আছে? বাইবেলের কিছু যুদ্ধের চিত্র আপনাদের সামনে তুলে ধরছি। ঈশ্বর নিজেকে, ঈশ্বর প্রমান করতে ১ লক্ষ ২৭ হাজার মানুষকে হত্যা করে: 23. রাজা বিন্হদদের রাজকর্মচারীরা তাঁকে বললেন, “ইস্রায়েলের দেবতারা আসলে পর্বতের দেবতা| আর আমরা পর্বতে গিয়ে যুদ্ধ করেছি তাই ইস্রায়েলের লোকরা জ....
17 Min read
Read more
॥ ১॥ আল কুরআন নাজীলের সূচনা ৬১০ খৃষ্টাব্দে । আল কুরআন রাসুলুল্লাহর  (ﷺ) জীবনঘনিষ্ঠ বিষয়বস্তু নিয়ে নাজীল হয়েছে খণ্ডে খণ্ডে, দীর্ঘ ২৩ বছরে। কুরআন পরিপূর্ণ রূপ পায় ৬৩২ ঈসায়ী সালে। কুরআনের প্রথম আয়াত সমুহ বদলে দেয় নবীজীর (ﷺ) জীবন। এরপর নবীজী (ﷺ) ও সাহাবীদের (رضي الله عنه) জীবন আবর্তিত হয় আল্লাহর কালাম তথা  কুরআনকে ঘিরেই । তাই সে সময় থেকেই কুরআনের প্রতিটি আয়াত বিশুদ্ধভাবে সংরক্ষণে প্রচেষ্টার কোনো কমতি ছিল না।  কুরআনের আয়াতাংশ, আয়াত, সূরা—যখনই যা নাজিল হতো, তখনই নবীজী (ﷺ) তা নিজে বার বার তেলাওয়াত ....
15 Min read
Read more
অজ্ঞতা : ইসলামে তালাকের অধিকার শুধু পুরুষদের দেয়া হয়েছে। নারীকে তালাক দেয়ার অধিকার দেয়া হয়নি।নারীর ইচ্ছা অনিচ্ছার কোন মূল্য নাই এই ধর্মে। অজ্ঞতার জবাব: ইসলামে নারীরা ও তালাক দিতে পারে: তালাক শব্দের অর্থ হচ্ছে বিয়ে বিচ্ছেদ। আর ইসলামি শরিয়তে তালাক নিকৃষ্ট কাজ বলে সাব্যস্ত করা হয়েছে। রাসূল সা: এক হাদিসে বলেন , “তালাক হচ্ছে সবচেয়ে নিকৃষ্ট হালাল কাজ।” [১] ইসলামে তালাক দেওয়ার ক্ষমতা শর্ত সাপেক্ষে নারী পুরুষ উভয়কে দেওয়া হয়েছে। তবে নারী ও পুরুষের তালাকের মধ্য কিছুটা পার্থক্য আছে । নারী পুরুষের তালাক দে....
5 Min read
Read more
    Fun – মাছ থেকে মানুষের বিবর্তন সকল বিষয়ে নোবেল-বিজয়ী’সহ গ্যালিলিও-নিউটন-আইনস্টাইনের মতো বিখ্যাত বিজ্ঞানীদের কেউই কোনো ধর্মবিদ্বেষী ছিলেন না, এখনো নেই। গ্যালিলিও ও নিউটন বরং আস্তিক ছিলেন। আর আইনস্টাইন অন্ততঃ স্বঘোষিত নাস্তিক ছিলেন না। এদিকে তিনজন বিজ্ঞানী’সহ যে’কজন মুসলিম নামধারী নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন তাঁদের সকলেই ইসলামে বিশ্বাসী।কারন ইসলামের সাথে বিজ্ঞানের কোন বিরোধ তারা পান নি, শুধু বিবর্তনবাদ ছাড়া। ভাবুন তো, বিজ্ঞানের সাথে কোন বিরোধ না থাকা সত্বেও বিবর্তনবাদ একা কেন ইসলামের সাথে শত্রুতা ....
2 Min read
Read more
উগ্রপন্থি নাস্তিকতার ভয়াবহতা জানার জন্য বইটি পড়ুন। আপনি জানতে পারবেন যে, আজকের কোমল পন্থি নাস্তিকতা তথা সেকুলারিজম, অসাম্প্রদায়িকতা কিভাবে মানুষের জন্য হুমকিস্বরূপ হয়ে উঠতে পারে। “এবং বল, ‘সত্য আসিয়াছে এবং মিথ্যা বিলুপ্ত হইয়াছে’; মিথ্যা তাে বিলুপ্ত হইবারই।” – (সূরা ইস্ ঃ৮১)। মুক্তির মহাসনদ নিয়ে কুরআনের এই শাশ্বত বাণী যখন নাযিল হলাে, মক্কায় তখন মিথ্যার অশুভ শক্তির দোর্দণ্ড প্রতাপ, এর অবসানের কোনাে লক্ষণই দেখা যাচ্ছিল না। অসত্যের প্রমত্ত ঝঞঝার আঘাতে সত্য তখন (ইসলাম ও এর খাটি অনুসারীরা) টালম....
3 Min read
Read more
Table of Contents ভূমিকা অন্যান্য মানসিক ও শারীরিক সমস্যা ডারউইনের অবস্থা অন্যান্য সম্ভাব্য কারণ ডারউইনের নিজের কথা উপসংহার গ্রন্থপঞ্জী ভূমিকা ডারউইনের মানসিক অবস্থা নিয়ে বহু গবেষণা হয়েছে। ডারউইন বলেছিলেন যে, তার স্বাস্থ্যগত সমস্যাসমূহ ১৮৫২ সালের প্রথমদিকে মাত্র ১৬ বছর বয়সে শুরু হয়েছিল এবং প্রায় ২৮ বছর বয়সের দিকে তাকে অক্ষম করে দিয়েছিল। (Barloon and Noyes, 1997, p. 138) Horan (1979, p. ix) লিখেছেন যে, ‘ডারউইন অসুস্থ ছিল এবং তার কেন্টের বাড়িতে নিজেকে একাকী ৪০ বছর আবদ্ধ করে রেখেছিল’। ডারউইনবা....
13 Min read
Read more